বুয়েটে রসায়ন বিভাগের ‘থ্রি মিনিট থিসিস’ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত

 
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
০৭ জানুয়ারি ২০২১, ২১:৪৭

স্নাতকোত্তর শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বুয়েট) রসায়ন বিভাগের ‘থ্রি মিনিট থিসিস’ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার (৭ জানুয়ারি) অনলাইন প্ল্যাটফর্মে আয়োজিত এ প্রতিযোগিতার চূড়ান্ত পর্ব অনুষ্ঠিত হয়।

 
 

এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. সত্য প্রসাদ মজুমদার। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপ-উপাচার্য অধ্যাপক আব্দুল জব্বার খাঁন।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন রসায়ন বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ড. মো. শাখাওয়াৎ হোসেন ফিরোজ।

বুয়েটে প্রথমবারের মতো আয়োজিত এই প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন নির্বাচিত হন রসায়ন বিভাগের ছাত্রী শায়লা চৌধুরী, প্রথম রানার আপ নির্বাচিত হন সাবেকুন নাহার মুন্না এবং দ্বিতীয় রানার আপ নির্বাচিত হন সানজিদা আফরিন।

প্রতিযোগিতার বিচার কাজ পরিচালনা করেন অস্ট্রেলিয়ার জেমস কুক বিশ্ববিদ্যালয়ের কেমিকৌশল বিভাগের সিনিয়র লেকচারার ড. জর্জ ভ্যামভৌনিস, কুইন্সল্যান্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের যন্ত্রকৌশল ও খণিবিদ্যা বিভাগের সিনিয়র লেকচারার ড. মো. শাহরিয়ার হোসেন, কুইন্সল্যান্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের স্কুল অব ফার্মেসির পোস্ট ডক্টরাল ফেলো ড. আঞ্জুমান আরা বেগম এবং ইন্দোনেশিয়ান ইন্সটিটিউট অফ সায়েন্সের গবেষক ড. আমান্ডা সেপ্টেভানি।

‘থ্রি মিনিট থিসিস’ প্রতিযোগিতা ২০০৮ সালে প্রথম অনুষ্ঠিত হয় অস্ট্রেলিয়ার কুইন্সল্যান্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে। এ প্রতিযোগিতায় এমফিল এবং পিএইচডি গবেষণা শিক্ষার্থীরা তাদের গবেষণাকর্ম তিন মিনিট সময়ের মধ্যে সহজবোধ্য করে তুলে ধরেন। কুইন্সল্যান্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রথম শুরু হলেও খুব অল্প সময়ের মধ্যে বিশ্বব্যাপী এটি ব্যাপক জনপ্রিয়তা লাভ করে।

বর্তমানে বিশ্বের নয়শ’র বেশি বিশ্ববিদ্যালয় নিয়মিত এ প্রতিযোগিতা আয়োজন করে থাকে। এ প্রতিযোগিতার মাধ্যমে গবেষণা শিক্ষার্থীদের কার্যকরী যোগাযোগ দক্ষতা ও নেতৃত্ব দেওয়ার গুণাবলি বিকশিত হয়। গবেষণা শিক্ষার্থীদের জন্য ‘থ্রি মিনিট থিসিস’ – এর গুরুত্ব বিবেচনা করে বুয়েটের রসায়ন বিভাগ মূল আয়োজকের অনুমতি নিয়ে বিভাগের গবেষণা শিক্ষার্থীদের জন্য এ প্রতিযোগিতার আয়োজন করে।

উল্লেখ্য, প্রতিযোগিতার প্রাথমিক পর্ব অনুষ্ঠিত হয় গত বছর ২৪ জানুয়ারি। প্রাথমিক পর্বে অংশগ্রহণকারী ৩৩ জন প্রতিযোগীর মধ্য থেকে ৯ জন প্রতিযোগীকে চুড়ান্ত পর্বের জন্য নির্বাচিত করা হয়। রসায়ন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ড. মো. ইলিয়াস হোসেন পুরো প্রতিযোগিতার সমন্বয়কারী এবং সঞ্চালকের দায়িত্ব পালন করেন।

সহযোগী সমন্বয়কারীর দায়িত্বে ছিলেন একই বিভাগের লেকচারার ড. মো. মাহবুব আলম। এছাড়াও বিভাগের অন্যান্য শিক্ষকদের সর্বাত্মক সহযোগিতায় প্রতিযোগিতাটি সফলভাবে সম্পন্ন হয়।

বিস্তারিত